রিয়াদ মিয়ার মেয়ে পটানোর টিপস | Jemon Blog
ঢাকারবিবার - ১৪ নভেম্বর ২০২১
  1. Ecommerce
  2. অনলাইন জব
  3. গল্প জানুন
  4. টেক আপডেট
  5. লাভ স্টোরি
  6. সাকসেস লাইফ
  7. সোস্যাল আপডেট
  8. হেলথ টিপস

রিয়াদ মিয়ার মেয়ে পটানোর টিপস

যেমন ব্লগ ডেক্স
নভেম্বর ১৪, ২০২১ ৪:৪০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

মেয়ে পটানো! হ্যালো আমার মিষ্টি বন্ধুরা কি অবস্থা সবার, কেমন আছো? আশা করি সবাই ভাল আছো! তবে আমি আশা করলেও তোমরা সবাই ভালো নেই সেটা আমি জানি, কারণ তোমাদের মধ্যে অনেকেরই গার্লফ্রেন্ড নাই, যার জন্য তোমরা অনেক টেনশনে পড়ে যাচ্ছো। তোমার অন্যান্য বন্ধুদের একজনের দুইজন তিনজন গার্লফ্রেন্ড থাকলেও তোমার একজনও নাই তুমি শত চেষ্টার পরেও মেয়ে পটাতে পারছনা, কেন পারছো না একইভাবে পারবে সেটাই জানাবো আজকের এই আর্টিকেলে।

দেখো তোমরা যদি মেয়ে পটাতে চাও তাহলে আজকের আর্টিকেলে যে বিষয় গুলো বলবো সেগুলো তোমাদের অবশ্যই মানতে হবে। তবে সেগুলোর মধ্যে প্রথমে রয়েছে: তোমাদেরকে অবশ্যই কলেজে গিয়ে কলেজের ড্রেস পড়ে কলেজের আশেপাশের কোন দামি বা বড় রেস্টুরেন্টে যেতে হবে। যেমন তোমার বাড়ি যদি হয় নরসিংদী তুমি যদি নরসিংদীর কোন একটা কলেজে পড়ো তাহলে ওই কলেজের আশেপাশে যে বড় রেস্টুরেন্ট আছে সেখানে যেতে হবে। রেস্টুরেন্টে যাওয়ার পর তুমি কি খাও বা না খাও সেটা কোন ব্যাপার না। ব্যাপার হলো তোমাকে খাবার সামনে নিয়ে কিছু ছবি তুলতে হবে এবং ছবিগুলো তোমার ফেসবুকের হিস্টোরিতে দিতে হবে। সাথে তোমার দুইজন বন্ধুকে নিতে হবে। মেয়ে পটানো

আরো পড়ুনঃ  ভূতের ঘটনার সত্যতা প্রকাশে আমরা ছিলাম - পার্ট ১

হিস্টোরিতে দিলে যে ঘটনাটা ঘটবে তোমার সাথে যে বান্ধবীরা আছে তারা তো নিশ্চয়ই তোমার ফ্রেন্ডলিস্টে আছে তো তোমার ফ্রেন্ড লিস্টে থাকলে, তারা তোমার হিস্টোরি টা দেখবে। হিস্টোরি টা দেখলে মনে মনে ভাববে যে খাওয়া-দাওয়া করে ওর সাথে রিলেশনে গেলে আমিও খেতে পারব; এটা ভেবে হয়তোবা তোমার সাথে এংগেজ হতে পারে। মেয়ে পটানো

মেয়ে পটানোর টিপস!

অদ্বিতীয় নাম্বার পদ্ধতিটা বর্তমান সময়ে খুবই জনপ্রিয়। কারণ বর্তমান সময়ে কাশফুল খুবই পরিচিত একটা মুখ ফেসবুকে। সবাই কাশফুলের সাথে ছবি তুলে সেটা ফেসবুকে আপলোড করে, তাই আপনাকেও কাশফুলের সাথে ছবি তুলে সেটা ফেসবুকে আপলোড করতে হবে কিংবা আপনার হিস্টরি তো দিতে হবে। সেই একইভাবে আপনি যেই মেয়েটাকে পছন্দ করেন সে যখন আপনার ওই ছবিটা দেখবে, অথবা আপনার কলেজের অন্যান্য মেয়েরা যখন আপনার ওই ছবিটা দেখবে। তখন তারা কিছুটা ইমপ্রেস হবে। আপনারা যদি আমার ফেসবুক প্রোফাইল টা ফলো করে থাকেন তাহলে দেখবেন যে কয়েকদিন আগেই আমি এই দুইটা কাজ করেছি। আমি নিজে নরসিংদীর বড় একটি রেস্টুরেন্টে দুই জন বন্ধুকে নিয়ে গিয়েছিলাম।

আরো পড়ুনঃ  মেজাজ গরম প্রচুর

এবং কিছু খাবার নিয়ে ছবি তুলে সেটা ফেসবুকে আপলোড করেছিলাম। শুধু রেস্টুরেন্টে গিয়ে ছবি আপলোড করে দেই সীমাবদ্ধ ছিলাম না আমি দুই নম্বর পদ্ধতিতে অবলম্বন করেছিলাম। অর্থাৎ আমি রেস্টুরেন্টের ছবি এবং কাশফুলের সাথে ছবি দুইটাই আমার ফেসবুক হিস্টোরিতে দিয়েছিলাম। এই দুইটা ছবি আপলোড করার পর আমি সিঙ্গেল থেকে স্কয়ার মিঙ্গেল হয়ে গেলাম। স্কয়ার মিঙ্গেল বলতে আমি একজনের আশা করেছিলাম কিন্তু আমি সেখানে অনেক অনেক রমণীদের পেয়ে গেলাম। শুধুমাত্র এই দুইটা পদ্ধতি অবলম্বন করে সিঙ্গেল রিয়াদ মিজ্ঞেল রিয়াদ হয়ে গেল। আশা করি এই দুইটা টিপস মানলে আপনারাও মিঙ্গেল হতে পারবেন।