তোমার ভালোবাসার রূপকথা • পর্ব-৫ | Jemon Blog
ঢাকাসোমবার - ২৯ নভেম্বর ২০২১
  1. Ecommerce
  2. অনলাইন জব
  3. গল্প জানুন
  4. টেক আপডেট
  5. লাভ স্টোরি
  6. সাকসেস লাইফ
  7. সোস্যাল আপডেট
  8. হেলথ টিপস

তোমার ভালোবাসার রূপকথা • পর্ব-৫

যেমন ব্লগ ডেক্স
নভেম্বর ২৯, ২০২১ ৫:৩৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ভালোবাসার! আমি আবার অস্থির সময় ফেসবুক করি বেশি কিন্তু ইশরাতের থেকে আমি ওর ফেসবুক আইডির নাম কিংবা সাথে ফেসবুকে কানেক্ট হওয়ার জন্য বলা হয়নি যেহেতু নাম্বার পেয়েছি ফেসবুকে চ্যাটিং করার কি দরকার তাই এটা আমি গ্রহণযোগ্য মনে করিনি অতঃপর চ্যাটিং করতে আমার একটু বিরক্ত লাগে অবশ্য তাই সরাসরি ফোনে কথা বলা হচ্ছে এভাবে চলে গেল বেশ কয়েকদিন।

অফিস থেকে আব্বু ফিরল শেষ হওয়ার পরে খাওয়া-দাওয়া শেষ করল অতঃপর আব্বু ডাক দিল আব্বুর রুমে আসলাম এর পর আপু বলল এখন কি করতে চাস দেশেতো আসা হলো লেখাপড়াও সবকিছু আল্লাহর অশেষ মেহেরবানীতে সম্পূর্ণ হলো।

আমি বললাম হ্যাঁ আব্বু এ বিষয়ে তোমার সাথে আমিও কথা বলতে চেয়েছিলাম তোমার ব্যস্ততার জন্য বলা হয়নি আব্বু বলল আমি বুঝেছি এখন বলো কি করতে চাও। আব্বু বলল তুমি কি আমার বিজনেসে থাকবে নাকি নিজের মত কিছু করতে চাচ্ছ আমি বললাম বিজনেস যেহেতু তুমি নিজেই হ্যান্ডেল করতে পারছো এবং এটা তুমি নিজেই হ্যান্ডেল করতে পারছো সবকিছু নিজের মত করে করতে পারতেছ তাই আমার মনে হয় আমার মতো করে আমি কিছু করতে পারলে এটা ভালো হতো। ভালোবাসার

আরো পড়ুনঃ  তোমার ভালোবাসার রূপকথা • পর্ব-৮

আব্বু বললো এটা খারাপ বলিস নি তবে কি করতে চাস কোন কিছু সিদ্ধান্ত করেছিস আমি বললাম ওরকম ভাবে সিদ্ধান্ত করা হয়নি তবে মনে মনে আমার ইচ্ছা ছিল লেখাপড়া শেষ করে দেশ ও দেশের মানুষের জন্য কিছু করার চেষ্টা করব যাতে আমার দেশের মানুষ উপকৃত হয় যাতে আমার দেশ আরো এগিয়ে যায় এ লক্ষ্যে কিছু করার চেষ্টা ইচ্ছা আমার হয়েছিল। ভালোবাসার

তোমার ভালোবাসার রূপকথা • পর্ব-৬

আব্বু বল তার মানে তুই কি করতে চাস আমি বললাম আমি নিজের মতো করে একটা কোম্পানি তৈরি করব এবং সেখান থেকে যে কাজ আমি পাব বাহিরের কাজগুলো আমার কোম্পানির থাকবে সফটওয়্যার কোম্পানি কারণ আমি বাহিরে এ বিষয় নিয়ে লেখাপড়া করেছি তাই এ বিষয়ে আমার অনেক বেশী জ্ঞান রয়েছে আমার কোম্পানিতে চাকরি করবে যারা হতদরিদ্র সামর্থ্য কম। যারা শিক্ষিত কিন্তু কোন চাকরি পাচ্ছে না অর্থাৎ যারা বেকারত্ব তে ভুগছে তাদেরকে এখানে চাকরি দেওয়া হবে এবং আমাদের এখানে একটা ফার্ম থাকবে সেই ফান্ডের টাকা কেবলমাত্র এই দেশের গরিবদের জন্য ব্যবহৃত হবে এটা খারাপ আইডিয়া না তবে অনেক ব্যয়বহুল রয়েছে তুই কি পারবি সামাল দিতে। ভালোবাসার

আরো পড়ুনঃ  তোমার ভালোবাসার রূপকথা • পর্ব-৬

আমি বললাম শুরুর দিকে তোমাকে একটু হেল্প করতে হবে যেমন টাকা পয়সার দিক থেকে আইডিয়া সবকিছুর দিক থেকে নতুন একটা ফ্ল্যাট নিতে হবে সে দিক থেকে তোমাকে একটু সহযোগিতা করতে হবে ইনশাল্লাহ পরবর্তীতে আমি একাই হ্যান্ডেল করতে পারব আল্লাহর রহমতে। ভালোবাসার

আব্বু বলল তুমি যদি ভালো বুঝিস যদি তোর ভালো মনে হয় তাহলে ঠিক আছে সামনের দিকে আগাতে পারো কোথায় ফ্ল্যাট নিলে ভালো হবে এটা দেখতে পারো আমি বললাম ঠিক আছে আপু ধন্যবাদ তোমাকে আসলে জীবনে কিছু করার লক্ষ্যে তোমাদের পারমিশন ছাড়া আমাদের মনবল ছাড়া কখনই আগানো সম্ভব না। ভালোবাসার

আব্বু বলল হ্যাঁ আমিও দোয়া করি তুমি যেন দেশ দেশের মানুষের জন্য ভালো কিছু করতে পারো আমাদের জন্য সুনাম হয় আমরা যেন তোমাকে নিয়ে গর্ব করতে পারি না তোমার কাছে তুমি করতে পারো যেন এটা আমরা চাচ্ছি। এভাবে আব্বুর থেকে পারমিশন দিলাম এবং নতুন একটা ফ্ল্যাট করার জন্য জায়গা খুঁজতে লাগলাম বিভিন্ন নিয়োগ পড়তে লাগলাম ভাল একটা জায়গায় থাক বসুন্ধরার পাশে একটা ফ্ল্যাট নেয়ার সুযোগ পেলাম। ভালোবাসার

সেখানে একটা প্লেট নিয়ে নিলাম এবং রাতভর সেখান একটা জায়গা নিয়ে নিয়েছে সে জায়গাতে ফ্লার্ট করার লক্ষ্যে সবকিছু তৈরি করেছে সবকিছু প্রায় সম্পন্ন করার লক্ষে হয়তো আর মাস খানিক হলে অফিস একদম প্রস্তুত হয়ে যাবে অতঃপর এখানে অনেক বড় একটা এমাউন্ট ইনভেস্ট হয়েছে কারণ জমি কেনা থেকে শুরু করে একটা ফ্ল্যাট তৈরি করা সবকিছু ছিল আব্বু টাকার উপরে নির্ভর করে কারণ আমার ব্যক্তিগত কোনো সঞ্চয় কিংবা আমার কোন ইনকাম নেই এখানে এবং আব্বু আমাকে খুব সহজেই সহযোগিতা করেছে এটা করার জন্য।

আরো পড়ুনঃ  তোমার ভালোবাসার রূপকথা • পর্ব-১

অতঃপর এখন ফ্ল্যাট রেডি অফিসের কম্পিউটার যাবতীয় যা কিছু প্রয়োজন সবকিছু একদম কমপ্লিট এখন নিয়োগ দিয়েছে প্রথম দিনেই প্রায় ৪ হাজার বেকার যুবক এখানে এসেছে ইন্টারভিউ দেয়ার জন্য আমি অনেকটা হতভম্ব হয়ে গেছি এটা কিভাবে সম্ভব আমাদের লোক প্রয়োজন মাত্র ৫৬ জন। নিউজ এর মধ্যে তাদের বেতন নির্ধারণ করা ছিল প্রত্যেক মাসে ৩৫ হাজার আর এই বেতনে এত মানুষ আগ্রহী কিভাবে সম্ভব তাহলে দেশের মানুষ আসলেই কি বেকারত্ব ভুগছেন তারা কি কোন কাজ পাচ্ছে না নাকি তাদের যোগ্যতা হচ্ছেনা কাজ করার এই বিষয়গুলো ভেবে কুল পাচ্ছিনা।

এই গল্পের পরবর্তী পর্ব করতে এখানে ক্লিক করুন।