ছোলা খাওয়ার উপকারিতা | Jemon Blog
ঢাকামঙ্গলবার - ৩১ আগস্ট ২০২১
  1. Ecommerce
  2. অনলাইন জব
  3. গল্প জানুন
  4. টেক আপডেট
  5. লাভ স্টোরি
  6. সাকসেস লাইফ
  7. সোস্যাল আপডেট
  8. হেলথ টিপস

ছোলা খাওয়ার উপকারিতা

যেমন ব্লগ ডেক্স
আগস্ট ৩১, ২০২১ ৬:৫৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

আপনারা সবাই জানেন যে ছোলা আমাদের শরীরের জন্য কতটা উপকারী একটি খাদ্য। ছোলা এমন একটি খাদ্য যা সব প্রাণীরাই প্রায় খেয়ে থাকে যেমন গরু, ছাগল এছাড়াও মানুষ ও ছোলা খেয়ে থাকেন। ছুলাতে অনেক ধরনের পুষ্টি উপাদান থাকে। ছোলার উপকারিতা এবং এর প্রত্যেকটা বিষয় নিয়ে এখন আলোচনা করব যে ছোলা খাওয়ার উপকারিতা কি? তাহলে চলুন শুরু করে দেওয়া যায়।

ছোলাতে প্রচুর পরিমাণ ক্যালোরি, ভিটামিন এবং খনিজ পদার্থ থাকে যা আমাদের শরীরের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। ছোলা বিভিন্নভাবে খাওয়া যায় যেয় ভাবে খাওয়া যায় সেই ভাবে উপকার পাওয়া যায়। তার মধ্যে যেটা বেশি উপকারী সেটা হচ্ছে সিদ্ধ করে খাওয়া। ছোলা যদি সিদ্ধ করে খাওয়া হয় তাহলে ছোলার মধ্যে থাকা বিদ্যামান উপাদান গুলো নষ্ট হয় না, যার ফলে ছোলা খেলে এর সঠিক পুষ্টি পাওয়া যায়।

ছোলা খাওয়ার বিভিন্ন ধরনের উপকারিতা দিক রয়েছে , তার মধ্যে আমি আপনাদের মাঝে কিছু উপকারী দিক তুলে ধরবো চলুন তাহলে এবার দেখে নেওয়া যাক।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে

শরীরে যখন অধিক পরিমাণে রক্তচাপ হয় তখন বিভিন্ন ধরনের স্ট্রোক হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। আর ছোলা খাওয়ার মাধ্যমে ছোলার ভেতরে থাকা বিদ্যমান পটাশিয়াম, ফলিক অ্যাসিড এসব উপাদান উচ্চ রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণ করে। এসব উপাদান শরীরের সাথে মিশে রক্ত চলাচল ধারাবাহিকতা ঠিক রাখে এবং অধিক রক্তচাপ থেকে মুক্তি দান করে। রক্তে যেসব উপাদান জরুরি ছোলা থেকে এসব উপাদান পাওয়া যায়। তাই ছোলা খাওয়ার মাধ্যমে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে রাখা যায়।

আরো পড়ুনঃ  ঔষধ খাওয়ার উপকারিতা ও অপকারীতা

রক্ত চলাচলে সাহায্য করে

বিভিন্ন সময় দেখা যায় যে মানুষের রক্ত নালী দিয়ে রক্ত চলাচল বাধাগ্রস্ত হওয়ার কারণে রক্তনালী ফেটে যায় এবং এর ফলে অনেকেই মৃত্যুবরণ করে। আর ছোলা খাওয়ার মাধ্যমে ছোলায় থাকা উপাদানগুলো রক্তের সাথে মিশে যায় এবং রক্তকে পাতলা করে দেয়। রক্ত পাতলা হওয়ার কারণে সূক্ষ্ম রক্তনালী দিয়ে রক্ত সুন্দর ভাবে প্রবাহিত হতে পারে। যার ফলে স্ট্রোক এবং অন্যান্য সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এজন্য রক্ত চলাচলে সাহায্য করতে নিয়মিত ছোলা খাওয়া অভ্যাস করতে হবে।

ক্যান্সার রোগের উপকারী

আমরা যদি আগে থেকেই ছোলা খাওয়ার অভ্যাস করি তাহলে ক্যান্সার সৃষ্টিকারী রোগ জীবাণু থেকে মুক্তি পেতে পারি। কারণ ছোলার ভিতরে থাকা ভিটামিন b6 ,পটাশিয়াম এবং ভিটামিন সি ক্যান্সারের মতো শক্তিশালী অসুখ থেকে মুক্তি দান করে।
কারণ ক্যান্সার সৃষ্টিকারী পদার্থ থাকে ছোলা খাওয়ার মাধ্যমে এগুলো ধ্বংস হয়ে যায়। যার ফলে কঠিন কঠিন অসুখ থেকেও মুক্তি পাওয়া যায়। এইজন্য ছোলা খাওয়া খুবই উপকারী।

ইফতার এ ছোলার ব্যবহার

রমজান মাসে অধিক পরিমাণে ব্যবহৃত হয়। ইফতারের টাইমে ছোলা সিদ্ধ করে রান্না করে ইফতারের আয়োজন এর সাথে দেওয়া হয়। এটি একটি জনপ্রিয়, কারণ ছোলাই থাকা উপাদানগুলো শরীরকে সতেজ করে তোলে। সারাদিন রোজা রাখার কারণে শরীরে কিছুটা ক্লান্তি হয় এবং কিছুটা ক্যালোরি ক্ষয় হয়। আর এই ক্যালরির ক্ষয় পূরণ করতে ছোলা খাওয়া অধিক কার্যকর।

আরো পড়ুনঃ  স্বপ্নের নায়ক সেই তুমি • পর্ব-২

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে

ছোলায় থাকা বিভিন্ন উপাদান শরীরের বিভিন্ন অসুখের প্রতিরোধ করে। এর সাথে সাথে শরীরের কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। ছোলা অনেক উপকারী খাদ্য, এটি খাওয়ার মাধ্যমে কোষ্ঠকাঠিন্য হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায় এবং এটি দূর করে।

ডায়াবেটিস এর উপকারি

ছোলা খাওয়ার মাধ্যমে ডায়াবেটিস থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। প্রত্যেকদিন সকালবেলায় হাঁটতে যাওয়ার আগে এক গ্লাস পানিতে এক মুঠো ছোলা ভিজিয়ে রেখে পানি সহ ভেজানো ছোলা খেয়ে নিতে হবে। এরপর আপনি হাঁটাহাঁটি করবেন, এর ফলে ছোলায় থাকা ক্যালোরি গুলো শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ প্রত্যঙ্গের পৌঁছাবে এবং ডায়াবেটিস থেকে মুক্তি করতে অধিক কার্যকরী। তাই ডাক্তারের সকালে বাসি পেটে ভেজা ছোলা খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

রক্তের চর্বি কমায়

বিভিন্ন সময় দেখা যায় রক্তের সাথে চর্বি যুক্ত হয়ে যায়। এটির কারণে রক্ত চলাচল বাধাগ্রস্ত হয় । আর ছোলা তে থাকা বিদ্যামান উপাদানগুলো শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ প্রত্যঙ্গের রক্তের মাধ্যমে পৌছে যায় এবং রক্ত থেকে চর্বি কমিয়ে দেয়।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি

ছোলাতে থাকা এসব উপাদান গুলো রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। কারণ আমরা জানি যে ছোলার মধ্যে ভিটামিন সি, খাদ্য-আঁশ এবং ভিটামিন বি ৬, এমন উপাদান থাকে।

আরো পড়ুনঃ  ফেসবুক পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করার নিয়ম

এছাড়াও আরও অনেক উপকার রয়েছে ছোলা খাওয়ার মাধ্যমে। ছোলা খাওয়ার নিয়ম এর মধ্যে প্রত্যেকদিন সকালবেলায় এক গ্লাস পানির মধ্যে এক মুঠো ছোলা ভিজিয়ে খেতে হবে। আপনারা যদি রাত্রে ছোলা ভিজিয়ে রাখেন সকালে এটি খেতে পারবেন। খেতেও সুস্বাদু পুষ্টিকর ও বটে। তাই নিয়মিত ছোলা খাওয়ার অভ্যাস করুন, কঠিন কঠিন অসুখ বিসুখ থেকে রক্ষা পাবেন। ধন্যবাদ।